ফের ধর্ষণকালে ধরা আ’লীগ নেতা

রাঙ্গামাটিতে ধর্ষণের ছবি ইন্টারনেটে প্রচারসহ ফের ধর্ষণকালে হাতেনাতে আটক হয়েছেন মো. আলমগীর হোসেন (৪৫) নামে আওয়ামী লীগের এক নেতা।

শুক্রবার বিকালে শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। শনিবার আদালতে চালান দেয়া হলে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

ধর্ষক আলমগীর হোসেন ভূষণছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য এবং বরকল উপজেলা আওয়ামী লীগের সদ্য কাউন্সিলে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন।

জানা গেছে, বিয়ের প্রলোভনে তালাকপ্রাপ্ত এক নারীর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন আলমগীর। এরপর শারীরিক সম্পর্কের ছবি ধারণ করে তা ইন্টারনেটে ছাড়ার ভয় দেখিয়ে দফায় দফায় ওই নারীকে ধর্ষণ করেন তিনি।

পরে অতিষ্ঠ হয়ে বিষয়টি পুলিশে অবহিত করেন ওই নারী ও তার পরিবারের সদস্যরা। শুক্রবার শহরের একটি আবাসিক হোটেলে ফের ডেকে নিয়ে ধর্ষণকালে আলমগীরকে হাতেনাতে আটক করে রাঙ্গামাটির কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

এরপর শনিবার তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করে গ্রেফতার দেখানো হয়। আলমগীরের ফাঁসির দাবিতে শনিবার সকালে রাঙ্গামাটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছেন বরকল এলাকাবাসী।

রাঙ্গামাটির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ছুফিউল্লাহ জানান, ধর্ষণের দায়ে আলমগীর হোসেনকে গ্রেফতার করেছে রাঙ্গামাটি কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

কোতোয়ালি থানার ওসি কবির হোসেন জানিয়েছেন, অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পর ভিকটিমকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।