গ্লোব বায়োটেকের ২০ লাখ ডোজ কিনবে নেপাল

করোনার ভ্যাকসিন ব্যানকোভিড নেয়ার জন্য গ্লোব বায়োটেকের সঙ্গে চুক্তি করেছে নেপাল।
সফলভাবে ট্রায়াল শেষ হলে ২০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন নেয়ার কথা জানান বাংলাদেশে নিযুক্ত নেপালের রাষ্ট্রদূত ডা. বংশীধর মিশ্র। বৃহস্পতিবার দুপুরে, রাজধানীর তেজগাঁওয়ে গ্লোব বায়োটেকের কারখানা পরিদর্শন শেষে তিনি একথা জানান।

ডা. বংশীধর মিশ্র বলেন, “নেপাল ‘ব্যানকোভিডের’ ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে আগ্রহী। এটি একটি বিরাট অর্জন। নেপালের ‘আনমোল’ নামের একটি কোম্পানি গ্লোব বায়োটেকের টিকা নেবে।”

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা গ্লোবের ভ্যাকসিনের বিষয়ে খুবই আগ্রহী। আমাদের দুই দেশের সংস্কৃতি-আবহাওয়া একই। গ্লোবের ভ্যাকসিন সফল হলে এটা বাংলাদেশের জন্য একটা বিরাট অ্যাচিভমেন্ট হবে। আর বাংলাদেশের অ্যাচিভমেন্ট মানে এটা আমাদেরও অ্যাচিভমেন্ট।’

এ সময় গ্লোবের চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ জানান, আরো ২ কোটি ডোজ ব্যানকোভিড নেয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে নেপাল। এছাড়া আরও একটি দেশ এই ভ্যাকসিনের ২০ মিলিয়ন ডোজ নিতে চেয়েছে। তবে তিনি এই দেশটির নাম বলেননি।

গত ১৫ অক্টোবর বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গ্লোব বায়োটেকের আবিষ্কার করা তিনটি ভ্যাকসিনকে কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেট তালিকাতে অন্তর্ভুক্ত করেছে। গ্লোবের ভ্যাকসিনের নাম ব্যানকোভিড। ভ্যাকসিন তিনটি হলো, D614G Variant mRNA vaccine, DNA plasmid vaccine এবং Adenovirus Type-5 Vector Vaccine। বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেক-ই বিশ্বের একমাত্র প্রতিষ্ঠান, যাদের সর্বোচ্চ তিনটি ভ্যাকসিনের নাম বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটের তালিকায় রয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২রা জুলাই গ্লোব বায়োটেক আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়, তারা করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কারের পথে রয়েছে এবং তাদের প্রাথমিক পরীক্ষা সফল হয়েছে।

You cannot copy content of this page