Breaking News

হিজড়াকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে দেড় লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

জুই নামের তৃতীয় লিঙ্গের এক ব‌্যক্তির সাথে প্রথমে বন্ধুত্ব পরে সেই সুবাদে ৩ মাসের জন‌্য দেড় লাখ টাকা ধার নেয় ঈশা খা নামের এক যুবক। পরে ‌সেই টাকা দিতে অস্বীকার করে। এরপরে নানা ধরনের প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে কালক্ষেপণ ক‌রতে থাকে ঈশা খা।

কোনো উপায় না পে‌য়ে বাধ‌্য হয়ে জুই নামের ওই তৃতীয় লিঙ্গের ব‌্যক্তি রোববার পটুয়াখালীর আদালতে ঈশা খার বিরুদ্ধে না‌লিশি মামলা দায়ের ক‌রেন।

পটুয়াখালীর দ্বিতীয় আমলি আদালতে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. শিহাব উদ্দিন মামলাটি সরাসরি আমলে নিয়ে আসামি ঈশা খার বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালে জুই হিজড়া ঢাকা বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় তার দলের সঙ্গে বসবাস করতো। তখন প্রেমিক ঈশা খা বসুন্ধরা কমিউনিটি সেন্টারে চাকরি করতো। একই এলাকায় থাকার কারণে দেখা সাক্ষাতের এক পর্যায়ে বন্ধুত্ব হয় তাদের। বন্ধুত্বের সম্পর্কের মাধ্যমে গভীর প্রেমের সম্পর্ক হয়।

এরই সূত্র ধরে জরুরি প্রয়োজনের কথা বলে তিন মাসের জন্য দেড় লাখ টাকা ধার নেয় প্রেমিক ঈশা খা। চলতি বছরের ৯ সেপ্টেম্বর প্রেমিক ঈশা খার কাছে টাকা চাইলে সে কোনো টাকা নেয়নি বলে অস্বীকার করে। পরে স্থানীয়ভাবে আপোস মিমাংসা করে ধার টাকা তুলতে ব্যর্থ হওয়ায় রোববার (১৫ নভেম্বর) জুই হিজড়া বাদি হয়ে পটুয়াখালী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ২-এর আমলী আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

বাদিপক্ষের আইনজীবী এস এম তৌফিক হোসেন মুন্না বলেন, এ ঘটনায় জুই হিজড়া বাদি হয়ে ৪০৬ ও ৪২০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। আদালত মামলাটি সরাসরি আমলে নিয়ে আসামির বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন। মামলার বাদি জুই হিজড়া (২৫) পটুয়াখালীর বাউফল উপ‌জেলার চন্ত্রদ্বীপ এলাকার বা‌সিন্দা। অপর‌দি‌কে আসামি ঈশা খা (২২) পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপ‌জেলার লালুয়া গ্রামের মো. ইউনুস খা এর ছেলে।