Breaking News

বলাৎকার নিয়ে বক্তব্য কই, বাবুনগরীকে প্রশ্ন

‘কিছু কিছু স্থানে ইসলামের নাম বিক্রি করে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। মাদ্রাসায় আমাদের সন্তানদের বলাৎকার করা হয়। কই তখন তো আপনারা প্রতিবাদ করতে আসেন না।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নিয়ে চিন্তা না করে হেফাজত নেতা জুনাইদ বাবুনগরীকে মাদ্রাসায় ছেলে শিশু ধর্ষণ নিয়ে ভাবার পরামর্শ দেয়া হয়েছে নারায়ণগঞ্জের একটি সমাবেশ থেকে।

রোববার (২৯ নভেম্বর) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জের বন্দরনগরের প্রেসক্লাবের সামনে এ সমাবেশ করে স্বেচ্ছাসেবক লীগ। সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি জুয়েল হেফাজত নেতা বাবুনগরীকে এদ্দেশে এসব কথা বলেন। পরে বিক্ষোভ মিছিল করে বঙ্গবন্ধু সড়কের দুই নম্বর রেলগেট এলাকায় অবস্থান নেয় নেতা কর্মীরা।

শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এক মাহফিলে হেফাজতের আমির জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, যে সরকারই যার ভাস্কর্যই নির্মাণ করুক না কেন, তারা টেনেহিঁচড়ে ফেলে দেবেন।

হুমকি দিয়ে কাজ হবে না জানিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা জুয়েল বলেন, মৌলবাদী বাবুনগরী, আপনারা অতীতে অনেক হুঙ্কার দিয়েছেন। আপনাদের হুঙ্কার আওয়ামী লীগের সামনে টিকবে না। ইসলামের নামে ও ইসলামের রাজনীতি করার নামে জনগণের শান্তি ভঙ্গ করার চেষ্টা করবেন, তা মেনে নেয়া হবে না।

‘মনে রাখবেন, আমরা কিন্তু শামীম ওসমানের রাজনীতি করি। বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে কটূক্তি করবেন; শামীম ওসমানের কর্মীরা কিন্তু বসে থাকবে না।’

সমাবেশে আরও বক্তব্যে রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সিনিয়র সহ সভাপতি বাবু চন্দন শীল, রবিউল হোসেন, ছাত্রলীগের মহানগর শাখার সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি।