Breaking News

করোনায় দাম বেড়েছে যে সব ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যের

বিক্রেতারা বলছেন, স্বাভাবিক সময়ের চেয়ে এসব পণ্যের বিক্রি বেড়েছে ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ বেশি। প্রায় সব পণ্যেরই দাম বেড়েছে ১০ থেকে ১৫ শতাংশ। কোনো কোনোটার আবার ৩০ শতাংশের বেশি। এলসি জটিলতা কেটে গেলে দাম স্বাভাবিক হবে বলে জানান আমদানিকারকরা।

করোনা ঝুঁকিতে দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। বিকল্প উপায়ে ঘরে বসেই চলছে ভার্চুয়াল ক্লাস। ঝুঁকি এড়াতে মিটিংসহ সময় মতো দাপ্তরিক কার্যক্রম শেষ করারও বড় ভরসা এখন ইলেক্ট্রনিক্স এসব ডিভাইস।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, করোনার সময় নিত্য প্রয়োজনীয় এসব পণ্য বেচাকেনায় বাড়তি চাপ সামাল দিতে হচ্ছে বিক্রেতাদের।



তারা বলছেন, হেডফোন, ওয়েবক্যাম, ল্যাপটপ, হার্ডডিক্স, মনিটর, রাউটারসহ প্রযুক্তির নানা পণ্যের বিক্রি বেড়েছে কয়েক গুণ।

বিক্রেতারা বলেন, ওয়েব ক্যাম, হেডফোন, স্পীকার এসবের চাহিদা এখন দ্বিগুণ।

মার্কেটে এসে অনেকে পড়েছেন বিপাকে। বাড়তি প্রতিটি পণ্যের দাম। ১৫শ’ টাকার ওয়েবক্যাম ২ হাজার টাকা, ৮শ’ টাকার হেডফোন ১২শ’ টাকা, ৭শ থেকে ৮শ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের মনিটর। এজন্য আমদানি কম হওয়াকেই দায়ী করছেন বিক্রেতারা।

তারা বলেন, করোনার কারণে দাম বেড়ে গেছে। সরবরাহে কমতি আছে।

আমদানি স্বাভাবিক না পর্যন্ত এসব পণ্যের দাম কমবে না বলে মত সংশ্লিষ্টদের।

দেশে তথ্য প্রযুক্তি খাতের আনুসাঙ্গিক পণ্য বাজার প্রায় ২ হাজার কোটি টাকার।